free
hit counter
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home » আন্তর্জাতিক » ডলারকে ছাড়িয়ে যেতে পারে চীনের ডিজিটাল ইউয়ান

ডলারকে ছাড়িয়ে যেতে পারে চীনের ডিজিটাল ইউয়ান

 

‘ক্যাশলেস চায়না’স ডিজিটাল কারেন্সি রেভোলিউশন’ এর লেখক রিচার্ড তুরিনের মতে, চীনের নতুন ডিজিটাল ইউয়ান আগামী দশকে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বন্দোবস্তে ডলারের আধিপত্যকে চ্যালেঞ্জ করতে প্রস্তুত।

‘মনে রাখবেন, চীন হল বৃহত্তম বাণিজ্য দেশ এবং আপনি চীন থেকে জিনিস কেনার সময় ধীরে ধীরে ডলারের পরিবর্তে ডিজিটাল ইউয়ান দেখতে যাচ্ছেন,’ তুরিন সোমবার সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি’কে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেছেন, ‘যদি আমরা প্রায় পাঁচ থেকে ১০ বছর সামনে চলে যাই, হ্যাঁ ডিজিটাল ইউয়ান আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে ডলারের ব্যবহার কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে,।

তুরিন একজন সাবেক ব্যাঙ্কার যিনি ফিনটেকেও কাজ করেছেন৷ তিনি বলেন, বিকল্প পেমেন্ট সিস্টেমের দিকে ড্রাইভ সম্ভবত দেশগুলির তাদের বর্তমান, ‘বেশিরভাগ ১০০ শতাংশ’ ডলারের উপর নির্ভরতা কমানোর আকাঙ্ক্ষা থেকে আসতে পারে। ‘আপনি ভবিষ্যতে যা দেখতে যাচ্ছেন তা হল একটি রোলব্যাক, একটি ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা অনুশীলন যা ধীরে ধীরে এবং সম্ভবত ডলারের উপর নির্ভরতা কিছুটা কমাতে চায়, ১০০ থেকে ৮০ বা ৮৫ শতাংশ।’

চীন তার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডিজিটাল কারেন্সি রোল আউট করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং বর্তমানে বিশ্ব সমকক্ষদের তুলনায় এ ক্ষেত্রে অনেক এগিয়ে রয়েছে। পিপলস ব্যাংক অফ চায়না ২০১৪ সাল থেকে তার সার্বভৌম মুদ্রার ডিজিটাল ফর্ম নিয়ে কাজ করছে। বিপরীতে ইউএস ফেডারেল রিজার্ভ ডিজিটাল ডলার ইস্যু করবে কিনা সে বিষয়ে এখনও কোনও অবস্থান নেয়নি, যখন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সম্প্রতি সরকারকে এই জায়গায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি ডলারের সম্ভাব্য ডিজিটাল সংস্করণের বিষয়ে গবেষণা ও উন্নয়নে জোর দিয়েছেন।

তুরিন বলেছিলেন যে, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি বর্তমানে ‘এক দশকের মধ্যে সমস্ত আর্থিক প্রযুক্তিতে এগিয়ে রয়েছে।’ তিনি যোগ করেছেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একটি সম্ভাব্য ডিজিটাল ডলারের জন্য পরিকল্পনা এবং পরীক্ষা থেকে বেরিয়ে আসতে ‘কমপক্ষে আরও পাঁচ বছর’ সময় নেবে।

রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পরে চীন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্রদের শক্তিশালী জোটকে সতর্কতার সাথে দেখছে বলে তার মন্তব্য এসেছে। বেইজিং এ পর্যন্ত সংঘাতের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে দোষারোপ করেছে এবং রাশিয়ার অভিয়ানকে ‘আক্রমণ’ বলতে অস্বীকার করেছে।

তুরিনের মতে, বেইজিং, পশ্চিমাদের দ্বারা আরোপিত পঙ্গু নিষেধাজ্ঞাগুলোকে বাইপাস করতে মস্কোকে সহায়তা করার জন্য ডিজিটাল ইউয়ান ব্যবহার করার সম্ভাবনা কম। ‘ডিজিটাল ইউয়ান একটি শিশু এই অর্থে যে, এটি ট্রায়ালে রয়েছে কিন্তু এখনও অভ্যন্তরীণভাবে চালু হয়নি বা আন্তর্জাতিক ভিত্তিতে এটির কোনো পরীক্ষা করা হয়নি,’ তিনি ব্যাখ্যা করেছেন। সূত্র: সিএনবিসি।

Check Also

ডোমারে এ.এন. ফাউন্ডেশনের মেধা মূল্যায়ন পরিক্ষা ও পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠিত

  ডোমার (নীলফামারী) থেকেঃ নীলফামারীর ডোমারে অলাভজনক প্রতিষ্ঠান এ.এন. ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেনীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *