free
hit counter
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home » নীলফামারীর খবর » নিহত শান্তিরক্ষী জাহাঙ্গীরের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর এবং রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদান

নিহত শান্তিরক্ষী জাহাঙ্গীরের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর এবং রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদান

মোসাদ্দেকুর রহমান সাজু, ডোমারঃ

মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে শান্তিরক্ষা মিশন কার্যক্রম পরিচালনার সময় মাটিতে পুঁতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে তিন বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী বীর সৈনিক জাহাঙ্গীর আলম, জসিম উদ্দিন ও শরিফ প্রধান। নিহত জাহাঙ্গীরের মৃতদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে এবং রাষ্ট্রীয় সন্মান প্রদান করা হয়েছে।

 

সৈনিক জাহাঙ্গীর আলমের বাড়ি নীলফামারী জেলার ডিমলা উপজেলার সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ তিতপাড়া হাজীপাড়া গ্রামের লতিফর রহমানের ছেলে। লতিফর রহমানের পাঁচ ছেলের মধ্যে জাহাঙ্গীর চতুর্থ। শান্তিরক্ষী নিহত সৈনিক জাহাঙ্গীর আলম ২০১৫ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। ১০ মাস আগে মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রের ব্যানব্যাট -৮ এলাকার উইক্যাম্পে শান্তিরক্ষী মিশনে যান তিনি।

সেখানে মাটিতে পুঁতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে জাহাঙ্গীরসহ তিন বাংলাদেশী সেনাবাহিনী প্রাণ হারালে সেবাবাহিনীর একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা মোবাইলে জাহাঙ্গীরের মৃত্যুর খবর তার বড়ভাই কর্পোরাল আবুজার রহমানকে নিশ্চিত করেন। এরপর থেকে জাহাঙ্গীরের পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

 

সেদিন থেকে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছে বাবা লতিফর রহমান, মা গোলেনুর বেগম এবং মৃত জাহাঙ্গীরের সদ্য বিবাহিত স্ত্রী শিমু আক্তার। শুধু পরিবার নয় জাহাঙ্গীরের বাড়ির আশপাশের এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে শোকের ছায়া। শুক্রবার বিকেলে নিহতদের মৃতদেহ দেশে আসে। তেজগাঁও আর্মি এভিয়েশনে সকল কার্যক্রম শেষে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টার যোগে আজ ১৫ অক্টোবর (শনিবার) সকালে ডিমলা রানী বৃন্দা রানী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জাহাঙ্গীর আলমের মৃতদেহ নিয়ে আসা হয়।

 

এসময় ক্যাপ্টেন তানজিদুল ইসলাম ২০ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারী খোলাহাটী সহ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা নিহত জাহাঙ্গীর আলমের কফিনটি নিয়ে পরিবারের লোকজনের হাতে হস্তান্তর করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী -০১ ডোমার -ডিমলা আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আফতাব উদ্দিন সরকার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বেলায়েত হোসেন, ডিমলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা লাইছুর রহমান প্রমুখ। এর পাশাপাশি সহ অশ্রু সজল চোখে শহীদ জাহাঙ্গীরের পরিবারের সদস্যরা।

 

এরপর নিহত জাহাঙ্গীর আলমের কফিনটি প্রিয়জনরা নিজ বাড়িতে নিয়ে এসে। দেশ মাতৃকার এমন শ্রদ্ধা সেন্টাল আফ্রিকা রিপাবলিকে সংঘাতময় ঝুকি পরিবেশে গিয়ে নিপীড়িত মানুষের কাছে শান্তি আর সাহায্যের হাত বাড়ানো বীর সৈনিক জাহাঙ্গীর আলমের কফিনটি লাল সবুজের পতাকায় মুড়ে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা সন্মান জানায়। এরপর জানাজা শেষে নিহত জাহাঙ্গীরে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

 

Check Also

ডোমারে এ.এন. ফাউন্ডেশনের মেধা মূল্যায়ন পরিক্ষা ও পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠিত

  ডোমার (নীলফামারী) থেকেঃ নীলফামারীর ডোমারে অলাভজনক প্রতিষ্ঠান এ.এন. ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেনীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *