free
hit counter
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home » নীলফামারীর খবর » ভিজিডি’র চাল ওজনে কম দেয়া আর টাকা নেয়ার অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান শোকজ

ভিজিডি’র চাল ওজনে কম দেয়া আর টাকা নেয়ার অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান শোকজ

 

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:
অতিদরিদ্র অসহায় দুস্থ নারীদের জন্য সরকার কর্তৃক মাসিক সহায়তা কর্মসূচী ভিজিডি’র চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান কে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। চাল ওজনে কম দেয়া এবং সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে টাকা নেয়ার সত্যতা পাওয়ায় উপজেলা প্রশাসন এই শোকজ করেছে। নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে এই ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, বুধবার সকাল থেকে ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে ভিজিডি’র কার্ডধারী ৭১৬ জন নারীর মাঝে আগস্ট মাসের চাল বিতরণ করা হয়। এসময় চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সরকার জুনের নির্দেশে প্যানেল চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম মায়নুল স্বয়ং কার্ড প্রতি ৩০ টাকা করে নেন। প্রকাশ্যে এভাবে অবৈধ অর্থ নেয়ার ঘটনা ঘটলেও তা বন্ধে কারও কোন পদক্ষেপ ছিলনা।

তাছাড়া চাল দেয়ার ক্ষেত্রে ওজনে কম দেয়ায় সুবিধাভোগীদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। জনপ্রতি ৩০ কেজির স্থলে ২৬-২৭ কেজি করে চাল দেয়ায় তারা দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্যাগ অফিসার উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা আখতারুজ্জামান অনুপস্থিত থাকায় বিষয়টি সাংবাদিকদের জানায়।

পরে খবরটি উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার নুরুন্নাহার শাহজাদী কে জানালে তিনি নিজে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এসময় অভিযোগের সত্যতা পেয়ে তিনি বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম হুসাইন কে অবগত করেন। এর প্রেক্ষিতে অভিযোগের বিষয়ে জবাব দিতে তাৎক্ষণিক ইউপি চেয়ারম্যান কে নোটিশ প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার নুরুন্নাহার শাহজাদী বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে গিয়ে সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে চাল কম দেয়া এবং টাকা নেয়ার বিষয়ে সত্যতা পাই। সে অনুযায়ী ইউএনও মহোদয়কে লিখিতভাবে জানিয়েছি। তিনিই এই ব্যাপারে ব্যবস্থা নিয়েছেন। এধরনের অনিয়মের কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম হুসাইন জানান, এটা একটা ইন্টারনাল ব্যাপার। এখনই এই ব্যাপারে নিউজ করার প্রয়োজন নেই। নোটিশ করেছি, জবাবটা দিক। ওয়েট এন্ড সি। তদন্ত হলে ফলাফল জানতে পারবেন। তখন না হয় লিখবেন। কেমন।

তিনি আরও বলেন, আপনারা হলেন রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ। এভাবে সব বিষয়েই যদি আপনারা ঝুকে পড়েন তাহলে তো সমস্যা। এটাতো তেমন কোন ব্যাপার নয়। এনিয়ে এতটা তৎপর হওয়ার কিছু নেই। বেচারাকে একটু সুযোগ দেন।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোখছেদুল মোমিন বলেন, অনিয়ম ধরা পড়ায় ইউএনও শোকজ করেছেন। সাত কর্মদিবসের মধ্যে জবাব দিতে হবে। জুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই নানা অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। এটা শুভ লক্ষণ নয়। দেখা যাক এবার কি হয়।

ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সরকার জুন বলেন, অভিযোগ ঠিক নয়। তারপরও যেহেতু শোকজ করা হয়েছে। তার জবাব দিবো। এতে কি হয় হবে। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি। অন্য কেউ চাইলেও আমাকে সরাতে পারবেন না। ষড়যন্ত্র করে এমন অহেতুক অভিযোগ করা হয়েছে। আপনারাও বেশি করে বাঁশ দেন।

Check Also

ডোমারে এ.এন. ফাউন্ডেশনের মেধা মূল্যায়ন পরিক্ষা ও পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠিত

  ডোমার (নীলফামারী) থেকেঃ নীলফামারীর ডোমারে অলাভজনক প্রতিষ্ঠান এ.এন. ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেনীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *