free
hit counter
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home » নীলফামারীর খবর » বিদ্যুৎ সেক্টরের মহাবিপর্যয়ের প্রতিবাদে সৈয়দপুরে জামায়াতের বিক্ষোভ সমাবেশ

বিদ্যুৎ সেক্টরের মহাবিপর্যয়ের প্রতিবাদে সৈয়দপুরে জামায়াতের বিক্ষোভ সমাবেশ

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:
সীমাহীন দূর্নীতি, অব্যবস্থাপনা ও অপরিণামদর্শী সিদ্ধান্তের ফলে বিদ্যুৎ সেক্টরে মহাবিপর্যয়ের প্রতিবাদে নীলফামারীর সৈয়দপুরে বাংলাদেশ জামায়াতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। রবিবার (৩১ জুলাই) বিকাল ৪ টায় উত্তরা আবাসন এলাকায় আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আমীর হাফেজ মাওলানা আব্দুল মুনতাকিম, সেক্রেটারী মাওলানা গওহর আলী, পৌর আমীর শরফুদ্দীন খাঁন।
উপস্থিত ছিলেন পৌর নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুস ছামাদ আজাদ, সেক্রেটারী মাওলানা ওয়াজেদ আলী, সহকারী সেক্রেটারী মাওলানা আব্দুল মেমেন। সমাবেশ ও মিছিলে দুই শতাধিক নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন। মিছিলটি আবাসনের প্রতিটি সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এসময় বিদ্যুতের ভেলকিবাজিতে ভুক্তভোগী সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীরাও সমর্থন ব্যক্ত করে মিছিলে সম্পৃক্ত হয়।
বক্তারা বলেন, বর্তমান আওয়ামী সরকার দিনের ভোট আগের রাতেই চুরি করাই শুধু নয় বিনাভোটেই গায়ের জোরে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রেখেছে। জনগণের প্রতি তাদের কোন দায়বদ্ধতা না থাকায় ইতিহাসের সর্বোাচ্চ লুটপাটে দেশকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে এসেছে। এক বিদ্যুৎ খাতেই অভাবনীয় নৈরাজ্য করে পারিবারিক ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে হাজার হাজার কোটি টাকা পকেটস্থ করেছে।
আর তার খেসারত দিতে হচ্ছে জনগণকে। বিদ্যুৎ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতার তবলা বাজিয়ে অহংকারকারীরা আজ কৃচ্ছতাসাধনের নামে লোডশেডিং সিডিউল ঘোষণা করে সাধারণ মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলেছে। সরকারের মন্ত্রী এমপিসহ সচিবালয়, সরকারী দপ্তরসমুহে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে কোন পদক্ষেপ না নিয়ে ছোট ছোট ব্যবসায়ীদের রাত ৮ টার মধ্যে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে বলছে। আর না করলে অভিযান চালিয়ে জেল ও জরিমানা করছে। অথচ দিনের বেলায় ৩-৪ ঘন্টায়ও বিদ্যুৎ পাচ্ছেনা জনগণ।
আসলে উন্নয়নের যত তুবড়ি আওড়ানো হোক সবই বাগাড়ম্বর মাত্র। প্রকৃত অর্থে দেশ বা জনগণের কোন উন্নয়নই হয়নি। উন্নয়নের নামে আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িতরা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়েছে মাত্র। আর দেশের সেই টাকা পাচার করে দেশের অর্থনীতিকে খোলশে পরিনত করেছে। যে কারণে আজ সবক্ষেত্রেই ভঙ্গুর অবস্থা। দেশ ও জনগণ সত্যিকার অর্থেই ভালো নেই। বিদ্যুৎ ক্ষেত্রের এই পরিনতি মূলতঃ সরকারের দেশবিরোধী কর্মকাণ্ডেরই ফসল।
অচিরেই এই অবৈধ সরকারকে বিতারিত না করলে দেশ দেউলিয়া হতে বাধ্য। এই পরিস্থিতি থেকে বাঁচতে হলে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিয়ে দেশপ্রেমিক ঈমানদার নেতৃত্বের হাতে রাষ্ট্র ক্ষমতা হস্তান্তরের বিকল্প নেই। এব্যাপারে যত দ্রুত উদ্যোগ নেয়া হবে তত তাড়াতাড়ি সুফল পাওয়া যাবে এবং অনিবার্য ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব হবে। আর আল্লাহর আইন ও সৎ লোকের শাসনই এক্ষেত্রে একমাত্র সমাধান। যা জামায়াতে ইসলামী ছাড়া আর কেউ করতে পারেনি। কখনো পারবেওনা।

Check Also

ডোমারে এ.এন. ফাউন্ডেশনের মেধা মূল্যায়ন পরিক্ষা ও পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠিত

  ডোমার (নীলফামারী) থেকেঃ নীলফামারীর ডোমারে অলাভজনক প্রতিষ্ঠান এ.এন. ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেনীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *